বান্দরবানে নিখোঁজ হবার ২০ দিন পর ফেরিওয়ালার লাশ উদ্ধার

প্রতীকি ছবি

বান্দরবানের থানচি উপজেলা থেকে সোমবার সকালে এক ফেরিওয়ালার অর্ধগলিত লাশ উদ্ধার করেছে পুলিশ। মোহাম্মদ আইয়ুব (৫৫) নামের ওই ফেরিওয়ালা ১৪ মে থানচিতে ম্রোদের একটি উৎসবে মালামাল বিক্রি করতে গিয়ে নিখোঁজ হয়ে যান। পুলিশের ধারনা, উৎসব থেকে ফেরার সময় তাকে হত্যা করে দুর্বৃত্তরা।

এ ঘটনায় জড়িত থাকার অভিযোগে চাই অং পা ম্রো (৩০) ও তাইরো ম্রো (২৪) নামে দু’জনকে আটক করেছে পুলিশ। তারা থানচির চমি পাড়ার বাসিন্দা।

থানচি থানার অফিসার ইনচার্জ জোবায়েরুল হক জানিয়েছেন, গত ১২ মে ফেরিওয়ালা আইয়ুব চট্টগ্রামের লোহাগাড়াস্থ নিজ বাড়ি থেকে মালামাল বিক্রির জন্যে থানচির চমি পাড়ায় যান। সেখানে ম্রো একটি উৎসবে মালামাল বিক্রি করেন তিনি। পরবর্তী দুই দিনও তার সাথে পরিবারের লোকজনের যোগাযোগ হয়। কিন্তু ১৪ মে থেকে তার মোবাইল বন্ধ পাওয়া যায়। এরপর ১৬ মে আইয়ুবের ভাই মোহাম্মদ আক্কাস থানচি থানায় এসে নিখোঁজের বিষয়টি জানালে পুলিশ তার খোঁজ শুরু করে। এক পর্যায়ে চমি পাড়ার দুই বাসিন্দাকে আটক করা হলে তাদের দেয়া তথ্যের ভিত্তিতে পাড়ার পার্শ্ববর্তী একটি পাহাড়ি ঝিরির কাছ থেকে আইয়ুবের লাশ উদ্ধার করা হয়।

নিহত আইয়ুব চট্টগ্রামের লোহাগাড়া উপজেলার পশ্চিম কলাউজানের মৃত গোলাম সোবহানের পুত্র। তিনি প্রায় দশ-পনের বছর ধরে বান্দরবানসহ আশপাশের বিভিন্ন এলাকায় প্রসাধন সামগ্রী, চুড়ি-ফিতা বিক্রি করতেন।

উত্তর দিন

Please enter your comment!
Please enter your name here