বান্দরবানে সাবেক পৌর কাউন্সিলরকে অপহরণ: আওয়ামী লীগের বিক্ষোভ

অপহৃত সাবেক আওয়ামী লীগ নেতা চথোয়াইমং মারমা।

বান্দরবান সদর উপজেলার উজি হেডম্যান পাড়া থেকে পৌরসভার সাবেক এক কাউন্সিলরকে অপহরণ করেছে সন্ত্রাসীরা। বুধবার রাত নয়টার দিকে এ ঘটনা ঘটে। অপহৃত ব্যক্তির নাম চথোয়াইমং মার্মা। তিনি বান্দরবান পৌর আওয়ামী লীগের সাবেক সহ-সভাপতি।

পুলিশ ও স্থানীয়রা জানায়, বুধবার রাতে উজি হেডম্যান পাড়ার খামারবাড়ি থেকে চথোয়াইমংকে অপহরণ করে নিয়ে যায় সন্ত্রাসীরা। পরে খবর পেয়ে পুলিশ ঘটনাস্থলে যায়।

অপহরণের খবর ছড়িয়ে পড়লে রাত ১১টার দিকে জেলা সদরে বিক্ষোভ মিছিল করে আওয়ামী লীগ। অবিলম্বে অপহৃতকে উদ্ধারের দাবি জানান তারা। অন্যথায় আন্দোলনের কর্মসূচি ঘোষণা করা হবে বলে বিক্ষোভ মিছিল থেকে জানানো হয়। মিছিলটিতে জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি ক্য শৈ হ্লা, সাধারণ সম্পাদক ইসলাম বেবী, যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক লক্ষীপদ দাশ, সদর উপজেলা চেয়ারম্যান একেএম জাহাঙ্গীর, পৌর কাউন্সিলর অজিত দাশসহ দলটির বিভিন্ন অঙ্গসংগঠনের নেতাকর্মীরা অংশ নেন।

গত ৭ মে বান্দরবান সদরের রাজবিলা থেকে বিনয় তঞ্চঙ্গ্যা নামের এক জেএসএস সমর্থককে হত্যা করে সন্ত্রাসীরা। এরপর ৯ মে একই এলাকায় জয়মনি তঞ্চঙ্গ্যা নামের আরো একজন জেএসএস সমর্থক খুন হন। ১৯ মে সেখানেই অপহরণের পর খুন করা হয় আওয়ামী লীগ সমর্থক ক্যচিংথোয়াই মারমাকে।

পার্বত্য চট্টগ্রাম জনসংহতি সমিতির সাথে আওয়ামী লীগ ও আরাকান লিবারেশন পার্টির কিছু দলছুট সদস্য নিয়ে সদ্যগঠিত মগ বাহিনীর বিরোধে এসব হত্যাকান্ড হচ্ছে বলে নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক স্থানীয় রাজনীতিকদের ধারনা। পাহাড়ের বিপুল চাঁদাবাজি ও আধিপত্য বিস্তারকে কেন্দ্র করে এই বিরোধে বান্দরবানের বিভিন্ন এলাকায় আতঙ্ক ছড়িয়ে পড়েছে। ৭ মে থেকে একই এলাকায় পরপর তিনটি হত্যাকান্ড হলেও এখন পর্যন্ত দোষীদের কাউকে সনাক্ত করতে পারেনি আইনশৃঙ্খলা বাহিনী।

উত্তর দিন

Please enter your comment!
Please enter your name here