লামায় দুই দফায় ৪১৭ রাবার গাছ কেটে ফেলেছে সন্ত্রাসীরা

বান্দরবানের লামায় একটি রাবার বাগানের ৩০৭টি গাছ কেটে ফেলেছে সন্ত্রাসীরা। ছবিটি শনিবার দুপুরে তোলা।

বান্দরবানের লামায় শুক্রবার রাতে একটি রাবার বাগানের ৩০৭টি গাছ কেটে ফেলেছে সন্ত্রাসীরা। এর আগেও ১৫ ফেব্রুয়ারি একই বাগানের ১১০টি গাছ কেটে ফেলা হয়েছিল। লামা উপজেলার রূপসীপাড়া ইউনিয়নের মংপ্রু পাড়া সংলগ্ন গাজী রাবার প্ল্যান্টেশনে এ ঘটনা ঘটেছে।

রাবার প্ল্যান্টেশনের তত্ত্বাবধায় হিরু বড়ুয়া জানান, ‘গাজী রাবার প্ল্যান্টেশন প্রায় ১২৫ একর পাহাড়ি জমিতে রাবারসহ বিভিন্ন প্রজাতির বাগান করেছে। বাগান সৃষ্টির পর থেকে স্থানীয় খইহ্লাচিং মারমার নেতৃত্বে একটি দল প্রায় সময় চাঁদা দাবি করতো। চাঁদা না পেয়ে শুক্রবার রাতে ১০-১২ জনের একটি দল অস্ত্রশস্ত্র নিয়ে বাগানে আসে। তারা বাগান কর্মচারিদেরকে অস্ত্রের মুখে জিম্মি করে চার বছর বয়সী ৩০৭টি রাবার গাছ কেটে দিয়ে চলে যায়।’

তিনি আরো জানান, ‘এর আগে ১৫ ফেব্রুয়ারি ১১০টি গাছ কেটে ফেলার পর খইহ্লাচিং মারমা ও তোরাব আলী নামে দু’জনের বিরুদ্ধে আদালতে মামলা করে গাজী রাবার প্ল্যান্টেশন। পরে তাদেরকে গ্রেফতার করা হয়। এখন জামিনে মুক্ত হয়ে আবারো ৩০৭টি গাছ কেটে দিয়েছে তারা। এতে বাগানের প্রায় ১৮ লাখ টাকা ক্ষতি হয়েছে।’

তবে অভিযোগ অস্বীকার করে অভিযুক্ত খইহ্লাচিং মার্মা জানান, ‘গাজী রাবার প্ল্যান্টেশনের লোকজন নিজেরাই গাছ কেটে এখন আমাকে মামলায় জড়িয়ে অহেতুক হয়রানি করছে। গাছ কাটার ঘটনায় আমি কোন ভাবেই জড়িত নই।’

লামা থানা পুলিশের অফিসার ইনচার্জ অপ্পেলা রাজু নাহা বলেন, ‘গাজী রাবার প্ল্যান্টেশনের গাছ কাটার ঘটনা শুনেছি। এ ঘটনায় ক্ষতিগ্রস্থরা অভিযোগ করলে আইনগত ব্যবস্থা নেয়া হবে।’

উত্তর দিন

Please enter your comment!
Please enter your name here