আমাজনের আগুন নেভাতে ৪৪ হাজার সেনা, যুদ্ধবিমান ছিটাচ্ছে পানি

পৃথিবীর ফুসফুসখ্যাত আমাজনের আগুন নিয়ন্ত্রণে আনতে প্রয়োজনীয় পদক্ষেপ নিতে ঐকমত্যে পৌঁছেছে উন্নত দেশগুলোর জোট জি সেভেন এর নেতারা। আগুন নেভাতে দমকল কর্মীদের পাশাপাশি, সাত রাজ্যে সেনা মোতায়েন করেছে, ব্রাজিল সরকার। বন রক্ষায়, ১০ মিলিয়ন পাউন্ড সহায়তার ঘোষণাও দিয়েছে দেশটি।

দুই সপ্তাহ পেরিয়ে গেলেও নিয়ন্ত্রণে আনা যায়নি আমাজনের আগুন। এরইমধ্যে নতুন করে আমাজনের এক হাজার দুইশো এলাকায় আগুন ছড়িয়ে পড়েছে।

ব্রাজিলের সরকারি স্যাটেলাইট মনিটরের হিসাব বলছে, আমাজনের ব্রাজিল অংশে চলতি বছর প্রায় ৪১ হাজার আগুন লাগার ঘটনা ঘটেছে। এরমধ্যে অর্ধেকের বেশি আগুন লেগেছে চলতি মাসেই। মিলতে শুরু করেছে প্রাণির মরদেহ। মারাত্মক ক্ষতির মুখে পড়েছেন স্থানীয় আদিবাসীরা।

জিনগু প্রদেশ আদিবাসীদের প্রতিনিধি ওয়ে কায়াপো বলেন, বিশ্ব সম্প্রদায় আমাজনকে বাঁচাতে ব্যর্থ। আমাজন ক্ষতিগ্রস্থ হলে আমরা আদিবাসীরা অস্তিত্ব সংকটে পড়বো। তাই আমাজনের গাছ কাটা কিংবা অবৈধ খনি ব্যবসা রুখে দিবো আমরা।

অ্যামাজানের বাসিন্দা অ্যান্তোনিও বলছেন, ‘আগুন বেড়েই চলেছে। আমাদের কৃষিজমি পুড়ে ছারখার হয়ে গেছে। শ্বাস নিতে কষ্ট হয়। একেবারে পথে বসে গেছি।’

আগুন নেভাতে সাত রাজ্যে ৪৪ হাজার সেনা মোতায়েন করেছে ব্রাজিল সরকার। যুদ্ধবিমান দিয়েও পানি ছিটানো হচ্ছে।

ফায়ার সার্ভিস কর্মী মারিও ভারগতি বলেন, আমাজনে অনেক জায়গায় আলাদা আলাদাভাবে ছোট বড় আগুন জ্বলছে। আগুন এতো ছড়িয়ে পড়েছে যে এটি নিয়ন্ত্রণে আনা অসম্ভব হয়ে যাচ্ছে।

আমাজনের আগুন নেভাতে প্রয়োজনীয় কারিগরি ও আর্থিক সহায়তার আশ্বাস দিয়েছেন ফ্রান্সে জি সেভেনে অংশ নেয়া বিশ্বনেতারা। এ ইস্যুতে ব্রাজিলকে ১০ মিলিয়ন পাউন্ড সহায়তার ঘোষণা দিয়েছে যুক্তরাজ্য।

ফ্রান্সের প্রেসিডেন্ট ইম্যানুয়েল ম্যাক্রো বলেন, আমাজনের আগুন শুধু ব্রাজিল নয়; গোটা বিশ্বের জন্য বড় সংকট। এটি নিয়ন্ত্রণে যা যা সহায়তা প্রয়োজন করবে ফ্রান্স। সেই সাথে আমাজনে পুনঃবনায়নে উদ্যোগ নেয়া হবে।

এদিকে আমাজনের আগুন নেভাতে ব্রাজিল সরকারের উদাসীনতার অভিযোগে ব্রাজিলসহ দেশে দেশে বিক্ষোভ চলছে। সূত্র: চ্যানেল টোয়েন্টিফোর অনলাইন।

উত্তর দিন

Please enter your comment!
Please enter your name here